প্রচ্ছদ » Slider » ঈদের আনন্দে তরুণদের অবধারিত অনুসঙ্গ পাঞ্জাবির হালচাল।

ঈদের আনন্দে তরুণদের অবধারিত অনুসঙ্গ পাঞ্জাবির হালচাল।

Posted By:নিজস্ব প্রতিবেদক | Posted In:Slider,অর্থনীতি,লাইফ স্টাইল | Posted On:Jul 17, 2014

টুডেবার্তা ।। ঈদের আনন্দকে বাড়িয়ে তুলতে নতুন পোষাকের কোন বিকল্প নেই। অন্যান্য সকল উপকরণের মধ্যে নতুন পোষাকই আছে পহেলা নম্বরে। নিজের এবং   পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের জন্য পছন্দের নতুন পোষাক সংগ্রহের ব্যাকুলতায় সকলেই এই মার্কেট সেই মার্কেট ঘুরে বেড়ায় ঈদ শুরুর বহু আগে থেকেই।

panjabi-03

হালে পাঞ্জাবির সাইজ, কালার এবং ডিজাইনেও এসেছে ব্যাপক বৈচিত্র্য। একেকটি পাঞ্জাবী যেন হয়ে উঠেছে ডিজাইনারের সাদা ক্যানভাস। ফ্যাশন হাউসগুলোর পাঞ্জাবির সংগ্রহে থাকছে নতুন নকশা, নতুন রং। কাটিংয়েও এসেছে পরিবর্তন, বাজার দখল করে আছে শর্ট আর সেমি লং পাঞ্জাবি।

এবারের ঈদের পাঞ্জাবির কাপড়ের মধ্যে রয়েছে খাদি, মটকা, সুতি, রাজশাহী সিল্ক,  মহিশুর সিল্ক, অ্যান্ডি সিল্ক, প্রিন্স সামসী, কুশান, কাসিস, খানশা, শাহজাদা আদি, জয়শ্রী সিল্ক, অ্যান্ডি কটন, ইন্ডিয়ান সিল্ক, জাপানি ইউনিটিকা, তসর, সামু সিল্ক, ধুতিয়ান, ইন্ডিয়ান চিকেনসহ আরও নানা ধরনের কাপড়।

কাপড় এবং কারুকাজের ওপর নির্ভর করে এসব পাঞ্জাবি বিক্রি হচ্ছে ৭০০ থেকে ৫-৬ হাজার টাকার মধ্যে।

DMpj23

ফ্যাশন সচেতন তরুণদের পছন্দের প্রথম তালিকায় রয়েছে পাঞ্জাবি। ঈদের ডামাডোল ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে। মার্কেটগুলোতে ভিড় বাড়তে শুরু করেছে। গরম এবং বৃষ্টি দুটোর কথাই মাথায় রেখে এবারের ঈদে পাঞ্জাবির কাপড়ে এসেছে ভিন্নতা। প্রতিবারের মতোই নতুন সব ডিজাইনের পাঞ্জাবি দেখা যাচ্ছে সব স্থানেই।  লাল, খয়েরি, কমলা, নীল, কালো, সাদা, ছাই, হালকা সবুজ বেগুনি ইত্যাদি রঙের পাঞ্জাবি পাওয়া যাচ্ছে সকল মার্কেটে এবং এই সকল আধুনিক কাটছাঁটের পাঞ্জাবির দাম নির্ভর করছে এর কারুকাজের উপর।

সময়ের সাথে ক্রেতাদের চাহিদা এবং ঋতু বৈচিত্র্যের বৈশিষ্ট্য মাথায় রেখে ফ্যাশন হাউসগুলোও তাদের পোষাকের পশরা সাজায়।

পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে এবং সারা দেশের পাঞ্জাবির চাহিদা মেটাতে জমে উঠেছে দেশের অন্যতম পাইকারী বাজার কেরানীগঞ্জের বাহারী পাঞ্জাবির হাট।ক্রেতাদের চাহিদা মেটাতে গিয়ে নির্ঘুমরাত কাটাচ্ছেন দর্জিরা। কমকরে হলেও এবারের ঈদ বাজারে ৭ কোটি পাঞ্জাবি সরবরাহ করা হবে বলে জানান তৈরি পোশাক মালিকরা।

Cats Eye Panjabi

সরেজমিন কালিগঞ্জ, আগানগর ও শুভাঢ্যার বিভিন্ন কারখানায় ঘুরে দেখা গেছে পাঞ্জাবি তৈরির ধুম। এইসব মার্কেটে একশ’ টাকা থেকে শুরু করে মিলছে ১ হাজার টাকা মূল্যের ফ্যাশনেবল পাঞ্জাবি।

পাইকারী ব্যবসায়ীরার জানান, এর আগে দেশের পাঞ্জাবির বাজার ভারত ও পাকিস্তানের দখল থাকলেও এই বাজার  এখন দেশেই গড়ে উঠেছে। তাছাড়া সারাদেশে এখানকার পাঞ্জাবির ব্যাপক চাহিদা থাকা সত্ত্বেও আমরা পুরোপুরিভাবে সেই চাহিদা মেটাতে পারছি না। তবে চাহিদার অর্ধেক মেটানো সম্ভব হয় কেরানিগঞ্জের পাইকারী মার্কেট থেকেই।

2

ঢাকার অন্যতম বড় পাঞ্জাবির বাজার পীর ইয়ামেনি মার্কেট। এ ছাড়া রয়েছে নিউ মার্কেট, এলিফ্যান্ট রোড মার্কেট, মালিবাগ, মৌচাক, সদরঘাট, গুলিস্তানসহ নানা ব্র্যান্ডের ফ্যাশন হাউসগুলোর শোরুমে পাওয়া যাচ্ছে পাঞ্জাবি।

এবার দেখে নেয়া যাক আসন্ন ঈদে দেশসেরা ফ্যাশন হাউসগুলোর কার প্রস্তুতি কেমন।

আড়ং : দেশের অন্যতম ফ্যাশন হাউস আড়ং এবারের ঈদ উপলক্ষে পাঞ্জাবির বিশাল কালেকশন নিয়ে এসেছে ক্রেতাদের জন্য। তাদের পাঞ্জাবির মূল্য মোটামোটি ১২০০-৬০০০ টাকার মধ্যে।

দেশিদশ : দেশিদশের সব কর্ণারেই রয়েছে বাহারি ডিজাইনের পাঞ্জাবি। এসব দোকানে মোটামুটি সাশ্রয়ী মুল্যেই মিলবে পছন্দের পাঞ্জাবি।দেশিদশের পাঞ্জাবির মূল্য সিল্ক (৪০০০-৬০০০) টাকা, এন্ডি কটন (২৫০০-৩৫০০) টাকা, কটন (৭৫০-২৫০০) টাকা।

ডোরস : এর প্রতিটি পাঞ্জাবিই সাতন্ত্র্য ডিজাইনের। গরম আবহাওয়ার কারণে পোশাকে উৎসবের রঙ হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে সফট টোন ও আরামদায়ক ফেব্রিকস। পাঞ্জাবির মূল্য ১৮০০-৭০০০ টাকা।

60ca7ea9c51502e3deb4145b681642b6

এছাড়া মেনজ ক্লাব, জেন্টল পার্ক, অঞ্জন’স, কে-ক্র্যাফট, সাদাকালো, বাংলার মেলা, রঙ, স্বদেশী,ওটু, আর্টিস্টি, ফ্রিল্যান্ড, ইয়েলো, মনসুন রেইন, ক্যাটস আই, স্মার্টেক্স, প্লাস পয়েন্ট, আজিজ সুপার মার্কেটের ফেরীওয়ালা, নিত্যউপহার, তারা মার্কা, আব্রু, স্বপ্নবাজ, মেঠোপথ, লাল-সাদা-নীল, দেশালসহ সারাদেশের শপিংসেন্টারগুলোতেই জমে উঠেছে ঈদের কেনাবেচা। আর এর বড় অংশ দখল করে আছে পাঞ্জাবির কালেকশন।