প্রচ্ছদ » Slider » খুলনায় নিটল টাটার শো-রুম উদ্বোধন

খুলনায় নিটল টাটার শো-রুম উদ্বোধন

Posted By:নিজস্ব প্রতিবেদক | Posted In:Slider,খুলনা,ব্যবসা-বানিজ্য | Posted On:Apr 11, 2015

জেলা প্রতিনিধি ।। খুলনা ::

খুলনায় নিটল টাটার প্যাসেঞ্জার কার ও নিটা টেম্পুর শো-রুমের উদ্বোধন করলে নিটল-নিলয় গ্র“পের চেয়ারম্যার আব্দুল মাতলুব আহমাদ। গতকাল শনিবার বিকাল ৪টায় নগরীর কেডিএ এভিনিউস্থ শো-রুমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামাল।

আমিনুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল গফ্ফার বিশ্বাস, মঈনুল ইসলাম জমাদ্দার। এছাড়াও খুলনা চেম্বার অব কমার্স এর নেতৃবৃন্দসহ ব্যবসায়ীরা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে তিনি ব্যবসায়ী শীর্ষ সংগঠন খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি এবং খুলনার সাংবাদিকদের সাথে সাথে মতবিনিময় করেন।

বেলা ১২টায় খুলনা চেম্বারের সভাকক্ষে নিটল-নিলয় গ্র“পের চেয়ারম্যান আব্দুল মাতলুব আহ্মাদ, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এন্ড কমার্স ব্যাংক লি: এর  চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস্ এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন এর সভাপতি এস এম আমজাদ হোসেন, এফবিসিসিআই এর সাবেক সহ-সভাপতিবৃন্দ, পরিচালকবৃন্দ ও খুলনা বিভাগের ৯টি চেম্বারসহ বিভিন্ন জেলা চেম্বারের সভাপতিবৃন্দ, পরিচালকবৃন্দ এবং দেশের বিশিষ্ট গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে খুলনা চেম্বারের পক্ষ থেকে সম্বর্ধনা জানানো হয়। উক্ত সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন খুলনা চেম্বারের সভাপতি কাজি আমিনুল হক।

সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতে সকল অতিথিবৃন্দকে খুলনা চেম্বারের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা এবং প্রধান অতিথিসহ বিশেষ অতিথিবৃন্দকে ক্রেষ্ট দিয়ে শুভেচ্ছা  জানানো হয়। খুলনা চেম্বারের সভাপতি তার স্বাগত বক্তব্যের শুরুতে পদ্মা সেতু নির্মান কাজ শুরু হওয়ার জন্য খুলনার ব্যবসায়ী সম্প্রদায়সহ আপামর জনসাধারণের পক্ষ থেকে এবং ব্যক্তিগতভাবে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এফবিসিসিআই এর সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের গতিশীলতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহন করবেন বলে আশা রেখে তার নিকট কিছু দাবীর কথা বক্তব্যের মাধ্যমে তুলে ধরেন। যেমন- খুলনাসহ এতদাঞ্চলের ব্যবসা-বাণিজ্যের অগ্রগতির স্বার্থে ফোরলেন সড়কপথ মংলা থেকে খুলনা ও যশোর হয়ে কুষ্টিয়া পর্যন্ত নির্মান, খুলনায় পাইপ লাইনের মাধ্যমে গ্যাস সরবরাহ, মংলা বন্দরের সার্বিক উন্নয়ন ও ফয়লা বিমান বন্দর নির্মান কাজ যথাশীঘ্র সম্পন্ন করে বিমান বন্দর চালু, এফবিসিসিআই ও চেম্বারের নির্বাচনের ক্ষেত্রে নির্ধারিত মেয়াদ শেষ হওয়ার পর নূন্যতম এক মেয়াদের জন্য অবসর গ্রহনের যে বিধান আছে তার পরিবর্তে জাতীয় নির্বাচন, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন, উপজেলা নির্বাচন ইত্যাদি নির্বাচনের বিধান প্রযোজ্যকরণ, ট্রেড লাইসেন্স ব্যবসায়ীদের কাজে ব্যবহৃত হয় বিধায় চেম্বারের আয়ের উৎস সৃষ্টির লক্ষ্যে সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভার পরিবর্তে চেম্বার কর্তৃক ট্রেড লাইসেন্স ইস্যু করা, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যবসায়ীদের ভূমিকা প্রধান হওয়ায় ওয়ারেন্ট অব প্রেসিডেন্স এ এফবিসিসিআই ও চেম্বারসমূহের সভাপতি ও পরিচালকবৃন্দের নাম অন্তর্ভূক্ত করা, পরিচলনা পরিষদের নির্বাচনে চেম্বার গ্র“প থেকে পরিচালক পদে ১৬ জন নির্বাচন করে থাকে যেখানে খুলনা বিভাগ থেকে অন্তত পক্ষে ০২ জন প্রার্থীর পরিচালক পদে প্রতিদ্বন্দিতা করার সুযোগ সৃষ্টি ইত্যাদি দাবীসমূহ পূরণের ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করা হয়। প্রধান অতিথিসহ বিশেষ অতিথিবৃন্দ খুলনা চেম্বারের সভাপতির বক্তব্য মনযোগ সহকারে শোনেন এবং দাবীগুলো পূরণের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই এর সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি আবুল কাশেম আহমেদ, এফবিসিসিআই এর সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ, এফবিসিসিআই এর সাবেক সহ-সভাপতি দেওয়ান সুলতান আহমেদ, এফবিসিসিআই এর পরিচালক মোহাম্মদ আনোয়ার সাদাত সরকার, এফবিসিসিআই এর পরিচালক বিজয় কুমার কেজরিওয়াল, এফবিসিসিআই এর পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ বজলুর রহমান, এফবিসিসিআই এর পরিচালক প্রবির কুমার সাহা, এফবিসিসিআই এর পরিচালক এ কে এম শাহেদ রেজা, এফবিসিসিআই এর পরিচালক মোঃ জালাল উদ্দিন আহমেদ (ইয়ামিন), এফবিসিসিআই এর পরিচালক মোঃ কহিনুর ইসলাম, এফবিসিসিআই এর পরিচালক তাবারাকুল তোসাদ্দেক হোসেন খান (টিটো), এফবিসিসিআই এর পরিচালক মোঃ আব্দুল ওয়াহেদ, এফবিসিসিআই এর পরিচালক মোঃ আমিনুল হক শামিম, এফবিসিসিআই এর পরিচালক মোঃ সিরাজুল হক, এফবিসিসিআই এর পরিচালক মোঃ শফিকুল ইসলাম ভরসা, এফবিসিসিআই এর পরিচালক আবু মতলেব, নওগা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি মোহাম্মদ আলী দীন, সুনামগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি নুরুল হুদা মুক্ত, ব্রাক্ষ্মনবাড়ীয়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি তানজিল আহমেদ, গাইবান্ধা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি মোঃ আবুল খায়ের মোরসালিন পারভেজ, ঝালকাঠি চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি আলহাজ্জ্ব সালাউদ্দিন আহমেদ সালেক, মানিকগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি সুদেব কুমার সাহা, নাটোর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ আমিনুল হক, বরিশাল মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি মোঃ নিজাম উদ্দিন, যশোর চেম্বারের প্রশাসক মিসেস সাবিনা ইয়াসমিন, কুষ্টিয়া চেম্বারের সভাপতি হাজী মোঃ রবিউল ইসলাম, বাগেরহাট চেম্বারের সভাপতি মোঃ শাজাহান মিনা, মেহেরপুর চেম্বারের সভাপতি জয়নাল আবেদীন, চুয়াডাঙ্গা চেম্বারের সভাপতি মোঃ ইয়াকুব হোসেন মালিক, ঝিনাইদহ চেম্বারের সভাপতি মীর নাসির উদ্দিন, সাতক্ষীরা চেম্বারের সভাপতি নাসিম ফারুক খান মিঠু, মাগুরা চেম্বারের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ নাজমুল হক (লাবলু), নড়াইল চেম্বারের সভাপতি মোঃ হাসানুজ্জামান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শেখ ফজলে ফাহিম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এরশাদ রানা, নিটল নিলয় গ্র“পের পরিচালক এস এম ফারুকী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও এফবিসিসিআই এর সাবেক পরিচালক নাজিবুল ইসলাম দীপু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও এফবিসিসিআই এর সাবেক পরিচালক দিলীপ কুমার আগারওয়ালা, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাসিনা নেওয়াজ- বাংলাদেশ ওম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি, যশোর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির পরিচালক শহিদুল ইসলাম মিলান, যশোর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির পরিচালক হাসান টুকুন, খুলনা চেম্বারের উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি শরীফ আতিয়ার রহমান, সহ-সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম, সহ-সভাপতি গোপী কিষণ মুন্ধড়া, পরিচালকবৃন্দ শেখ আসাদুর রহমান, শেখ মাহাবুব রহমান, আবুল বাসার পাটওয়ারী, এস এম ওবায়দুল্লাহ, এস এম সাইফুল ইসলাম পিয়াস, আজিজুর রহমান, এম এ মতিন পান্না, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, মোঃ সিরাজুল হক, আলহাজ্ব মোঃ মোশাররফ হোসেন, মোঃ মোস্তফা কামাল পাশা, মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন, বদরুল আলম মার্কিন, মোঃ মফিদুল ইসলাম টুটুল, মোঃ মোস্তফা জেসান ভুট্টো, শেখ মোঃ গাউসুল আজম, মোঃ আমিনুল ইসলাম (মুন্না), খান সাইফুল ইসলাম, এস এম খালিদ হোসেন, দীপক কুমার দাস এবং বিভিন্ন জেলা চেম্বারের সহ-সভাপতি ও পরিচালকবৃন্দ।